কাশ্মীরী জনগণের প্রতি সংহতি জানিয়ে উপত্যকাটি থেকে কারফিউ প্রত্যাহারসহ সবধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনর্বহালের দাবি জানিয়েছে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা–ওআইসি। গত ৩১ আগস্ট এক বিবৃতিতে কাশ্মীরে ভারত সরকারের গৃহীত পদক্ষেপকে একতরফা আখ্যায়িত করেছে সংস্থাটি।

 

কাশ্মীরী জনগণের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করে ওআইসি মহাসচিব বলেন, কাশ্মীর ইস্যুটি ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত একটি দ্বিপাক্ষিক বিষয়। এ বিষয়ে ভারত একতরফা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। সংকট সমাধানে ভারতকে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ও জাতিসংঘের নীতিমালা মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি।

উক্ত বিবৃতিতে জম্মু-কাশ্মীর থেকে কারফিউ প্রত্যাহারসহ সবধরণের যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনর্বহাল করে জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে ভারত সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে ওআইসি। এর আগে গত ৫ আগস্ট বিজেপি সরকার কর্তৃক কাশ্মীরের সাংবিধানিক মর্যাদা বাতিলের পর উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা–ওআইসি। পাশাপাশি কাশ্মীর বিষয়ে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়ার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল সংস্থাটি।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট ভারতের পার্লামেন্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে সেখানে কেন্দ্রের শাসন জারি করে। একই সঙ্গে সেখানে যাতে কোনো ধরনের আন্দোলন না হয় এ জন্য সব রাজনৈতিক নেতাদের বন্দি করে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়। গত ২৭ দিন যাবত খাঁচাবন্দী জীবনযাপন করছেন কাশ্মীরি জনগণ।