Category Archives: রাজনীতি

নির্বাচনে পরীক্ষার মতো ‘অটো পাস’ চায় জাপার মহাসচিব

রাহবার নিউজ: জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ‘সহিংসতায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মায়ের বুক খালি হয়েছে। এর চেয়ে যেভাবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় অটো পাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে, তেমনিভাবে নির্বাচনে জানমালের ক্ষতি না করে অটো পাসের ব্যবস্থা করুন।’

শুক্রবার আসরের নামাজের পর বনানীর কার্যালয়ে জাপার চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের সুস্থতা কামনায় আয়োজিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি নির্বাচনে ‘নৈরাজ্য ও ভোট ডাকাতির’ সমালোচনা করে শক্তিশালী স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি জানান।

দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের শাসনামলের কথা উল্লেখ করে জাপার মহাসচিব বলেন, পল্লিবন্ধুর আমলে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, গুম, হত্যা, চাঁদাবাজি ছিল না। তাই মানুষ এখনো পল্লিবন্ধুর স্বর্ণালি যুগে ফিরে যেতে চায়। আগামী নির্বাচনে জি এম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি সরকার গঠন করে পল্লিবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা হবে।

জাপার ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটি এই মাহফিলের আয়োজন করে। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিটির সভাপতি এস এম ফয়সল চিশতী, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ও কারি হাবিবুল্লাহ বেলালী। উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতা আমানত হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম পাঠান, তারেক এ আদেল, সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন, আনিস উর রহমান, এম এ রাজ্জাক খান প্রমুখ। প্রথম আলো।

Tagged , ,

যারা ভাস্কর্যে হাত দিয়েছে, ৯ জানুয়ারি তাদের মরণ ঘণ্টা বাজানো হবে: শামীম ওসমান

রাহবার ডেস্ক: যারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে হাত দিয়েছে, হাতুড়িপেটা করেছে আগামী ৯ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ থেকে তাদের মরণ ঘণ্টা বাজানো হবে। যে দিন থেকে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে হাত দেয়া হয়েছে সেদিন থেকে হৃদয়ে রক্ত ক্ষরণ হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এক কর্মী সমাবেশে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ যখন ঘণ্টা বাজায় সারা বাংলাদেশে তখন ঘণ্টা বাজে। আগামী ৯ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ থেকে এই ঘণ্টা বাজাবো। এ ঘণ্টার এমন আওয়াজ হবে সেই আওয়াজে ভাস্কর্য বিরোধীদের হৃদপিণ্ড বন্ধ হয়ে যাবে। এদিকে আগামী ৯ তারিখের সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

গতকাল (২৮ ডিসেম্বর) সোমবার রাতে বন্দর উপজেলার সুরুজ্জামান টাওয়ারে বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে এ কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এম এ রশিদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কাজিমউদ্দিন প্রধানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক মো. রাসেল, ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানু, ছালিমা হোসেন শান্তা প্রমুখ।

বাবুনগরী, সেই ৫ মে’র কথা, ভুলে গেছেন? : মেয়র তাপস

রাহবার নিউজ: বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে এক মানবন্ধনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, জনাব বাবুনগরী, আপনাকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই সেই ৫ মে’র কথা, ভুলে গেছেন? মনে করেছিলেন শাপলা চত্বর দখল করলে বাংলাদেশ দখল হয়ে যাবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা যতদিন জীবিত আছি। এ বাংলাদেশ কেউ দখল করতে পারবে না।

বুধবার (৯ ডিসেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের সামনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। কর্মসূচিতে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত ছিলেন সংগঠনের আহ্বায়ক জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন ও যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুল বাসেত মজুমদার।

বক্তব্যে সংগঠনের সদস্য সচিব ও মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ভাস্কর্য ভেঙে তারা মনে করেছে তারা বিজয়ী হয়েছে। যখনি সংবিধান বিরোধী কার্যক্রম হয়েছে, গণতন্ত্রকে আক্রমণ করেছে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আঘাত এসেছে, তখনি আমরা আইনজীবী অঙ্গন তার দাঁতভাঙা জবাব দিয়েছি। এখনও আমরা প্রস্তুত তার দাঁতভাঙা জবাব দিতে।

ভাস্কর্যের বিরোধিতাকারীদের উদ্দেশে তাপস বলেন, আপনারা নিবৃত হবেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শান্তির নীড়ে থাকবেন। আর না হলে আপনারা একসময় যে স্লোগান দিয়েছিলেন, বাংলা হবে আফগান, আপনাদের সেই আফগানিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

বক্তব্যে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, যারা এ অন্যায় অপকর্মের সঙ্গে সম্পৃক্ত হবে, তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনবো। তাদের প্রত্যেককে বিচারের সম্মুখীন করবো।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এস এম মুনীর, মোখলেসুর রহমান বাদল, বশির আহমেদ, মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী, নাহিদ সুলতানা যুথী, আজহারুল্লা ভূইয়া, সানজিদা খানম শাহ মঞ্জুরুল হক, কে এম মাসুদ রুমি, এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, মোজম্মেল হক রানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয়: নতুন ধর্মপ্রতিমন্ত্রী

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয়, ভাস্কর্য বিরোধিরা না বুঝেই আন্দোলন করছে: নতুন ধর্মপ্রতিমন্ত্রী

রাহবার নিউজ ডেস্কঃ ভাস্কর্য আর মূর্তি এক না, ভাস্কর্য বিরোধিরা না বুঝেই আন্দোলন করছে বলে মন্তব্য করেছেন নতুন ধর্মপ্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান।

রোববার (২৯ নভেম্বর),২০২০ দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

নতুন প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের সব জায়গাতেই এটা হয়। আমি মিশরে গিয়েছি সেখানেও ভাস্কর্য দেখেছি। আরব দেশগুলোতেও দেখেছি। বাংলাদেশে যারা সমালোচনা করছে তাদের বুঝতে হবে মূর্তি আর ভাস্কর্য এক জিনিস নয়। এটা বোঝাতে পারলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

গত ২৪ নভেম্বর প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পাঁচ দিন পর রোববার (২৯ নভেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ফরিদুল।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যখন কোনো সমস্যা হয়, তখন সমাধানের উপায়ও থাকে। ভবিষ্যতে এমন যেন না ঘটে আমরা সচেষ্ট থাকব।’

নতুন দায়িত্ব নিয়েছেন বলে এই ইস্যুতে আর কোনো কথা না বলে সবার সহযোগিতা চাইলেন ফরিদুল হক খান।

তবে তার এই বক্তব্য কে ঘৃণার সহিত প্রত্যাখ্যান করেছে আলেম সমাজ। এবং তার বক্তব্য কে ধর্মদ্রোহীতার সামিল বলে তুলনা করেছেন।

ধর্ষণ বাড়ার পেছনে বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র রয়েছে: নাছির

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ হঠাৎ করে দেশে নারী ও শিশু ধর্ষণের ঘটনা বেড়ে যাওয়ার পেছনে বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

তিনি বলেন, সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য, সরকারের ভাবমূর্তিকে জনগণের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করে তোলার জন্য তারা এ অস্থিরতা সৃষ্টি করছে। দিন যতোই যাচ্ছে তা স্পষ্ট হয়ে উঠছে। ধর্ষণের মতো অপরাধের ঘটনাকে ইস্যু বানিয়ে কারা আন্দোলনের নামে নতুন ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সজাগ থাকতে হবে।

গত রোববার নগরীর ৭ নম্বর পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আওতাধীন ‘এ, বি ও সি’ ইউনিট আওয়ামী লীগের পৃথক কার্যকরী কমিটির সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক নেতা বলেন তার এসব কথা শুধুই রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের প্রতি রাজনৈতিক আক্রমন ও নিজেদের দোষ কে ধামাচাপা দেওয়ার অপ-প্রয়াস যেহেতু পরপর দেশে ঘটে যাওয়া ঘটনা গুলো পর্যালোচনা করে দেখা যায় বেশিরভাগ ঘটনার সাথে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ এর নেতাকর্মীরা জড়িত।

Tagged , , ,

রাজনীতি কে বিদায় জানাচ্ছেন আল্লামা মাহফুজুল হক।

রাহবার২৪.কমঃ বাংলাদেশের প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন আল্লামা মাজফুজুল হক সম্প্রতি বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া (বেফাক) এর ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব পদে দায়ীত্বপ্রাপ্ত হয়েছেন। পাশাপাশি তিনি জনপ্রিয় ইসলামিক রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ এর মহাসচিব পদে আগে থেকেই দায়ীত্ব পালন করে আসছেন।

বেফাক এর গঠনতন্ত্র অনুসারে সভাপতি ও মহাসচিব পদ এ কোন রাজনৈতিক ব্যাক্তি দায়ীত্ব পালন করতে পারবে না । সে মোতাবেক আগামী শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর’২০ তারিখে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় অফিসে বসবে নির্বাহী কমিটির বৈঠক। সেখানে দলটির বর্তমান মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক দায়িত্ব ছেড়ে পদত্যাগপত্র জমা দিবেন। বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তবে কে হচ্ছেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের পরবর্তি মহাসচিব সে নিয়ে গুঞ্জন চলছে সারাদেশে। ধারণা করা হচ্ছে এ পদে আসতে পারেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আটজন যুগ্ম মহাসচিব থেকে যে কোনো একজন। তাদের মাঝে উল্লেখযোগ্য কয়েকজন হলেন, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা জালালুদ্দীন, মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন, মাওলানা কুরবান আলী প্রমুখ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির একাদিক সিনিয়র নেতার সাথে কথা বলে জানা গেছে পরবর্তি মহাসচিব পদে যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের সম্ভাবনা সবছেয়ে বেশি। তবে দলটির মহাসচিবের চেয়ারে কে বসবেন তা চূড়ান্তভাবে জানা যাবে আগামি শনিবার নির্বাহী কমিটির বৈঠকের পর।

মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন জানান, আগামী শনিবারের নির্বাহী কমিটির মিটিংয়ে যিনি দলের মহাসচিব নির্বাচিত হবেন তিনি ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। চলতি বছরের ডিসেম্বরে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সর্বোচ্চ ফোরাম মজলিসে শূরা বা আমেলা কমিটির মিটিং রয়েছে। সেখানে অনুষ্ঠিত হবে দলের কাউন্সিল। এরপর ডিসেম্বরের কাউন্সিল পরবর্তী ঠিক হবে দলের মূল নেতৃত্ব।

বর্তমানে দলটির সভাপতি হিসেবে রয়েছেন মাওলানা ইসমাঈল নূরপুরী।

Tagged , , ,

সিলেট ও খাগড়াছড়িতে নারী গণধর্ষণের ঘটনায় আল্লামা কাসেমীর ক্ষোভ

রাহবার ডেস্ক: সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর কাছ থেকে স্ত্রীকে কেড়ে নিয়ে এবং খাগড়াছড়িতে চাকমা প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের নিষ্ঠুর ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ’র মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

আজ (২৬ সেপ্টেম্বর) শনিবার গণমাধ্যমে প্রেরিত বিবৃতিতে তিনি বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করে আসছি যে, গণধর্ষণের এমন বর্বরতম ঘটনার প্রায় সকলক্ষেত্রেই দেখা গেছে ধর্ষকদের দলীয় পরিচয় ও রাজনৈতিক আশ্রয় আছে এবং যেকোনো ধরনের অপরাধ করে পার পেয়ে যাওয়ার একটা অলিখিত নিশ্চয়তাও তাদের মনে কাজ করে থাকে। যে কোন সভ্য সমাজের জন্য এটা ভয়াবহ উদ্বেগের বিষয়।

তিনি আরো বলেন, ২০১২ সালের ডিসেম্বরে বিশ্বজিৎ দাসকে দিনদুপুরে কুপিয়ে হত্যার সুস্পষ্ট আলামত ও প্রমাণ থাকা সত্ত্বেও আসামিদের খালাস পেয়ে যাওয়া কিংবা একের পর এক সাজাপ্রাপ্ত প্রভাবশালী খুনিদের রাষ্ট্রীয়ভাবে সাজা মওকুফ করে মুক্ত করার যে ভয়ঙ্কর সংস্কৃতি আওয়ামী লীগ চালু করেছে, তার ফলে একের পর এক হত্যা, গণধর্ষণ, সন্ত্রাস এবং সামাজিক নৈরাজ্য সৃষ্টির পথ খুলে গেছে।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী গভীর হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, সাধারণ মানুষের আইনি নিরাপত্তা, বিচার পাওয়ার নিশ্চয়তা ও সামাজিক সুরক্ষার কোন কিছুই এখন আর অবশিষ্ট নাই! এভাবে একটি রাষ্ট্র চলতে পারে না।

শর্তসাপেক্ষে ৬ মাস বাড়ানো হয়েছে খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ : আইনমন্ত্রী

রাহবার: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ শর্তসাপেক্ষে আরো ছয় মাস বাড়িয়েছে আইন মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার (০৩ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

তিনি বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ শর্তসাপেক্ষে আরো ছয় মাস দিয়ে দিয়েছি। আগের যে শর্ত সেই শর্ত সাপেক্ষে ছয় মাস শেষ হওয়ার দিন থেকে সাজা স্থগিত রেখে নির্বাহিী আদেশে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

তবে এ সময়ে তিনি বিদেশে যেতে পারবেন না বলেও জানান আইনমন্ত্রী ।

খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৪ শে মার্চ খালেদা জিয়াকে শর্ত সাপেক্ষে সরকারের নির্বাহী আদেশে সাজা স্থগিত করে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দিয়েছিল সরকার ।

সে দিনই খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় দুই বছরের বেশি সময় জেল খাটার পর মুক্তি পেয়েছিলেন। তিনি এখন যে মুক্ত আছেন সেই মুক্তির মেয়াদ আগামী ২৪শে সেপ্টেম্বর শেষ হতে যাচ্ছে। সেই প্রেক্ষাপটে গত ২৫ শে অগাস্ট শামীম ইস্কান্দার পরিবারের পক্ষ থেকে স্থায়ী মুক্তি চেয়ে আবারো আবেদন করা হয়েছিল।

এখন সেই আবেদনের প্রেক্ষিতেই আইন মন্ত্রণালয় খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আআরো ৬মাস বাড়ালো । আইনমন্ত্রী জানিয়েছেন, এটি প্যারোল বা জামিন মুক্তি নয়। ফৌজদারি কার্যবিধিতে সরকারের যে ক্ষমতা রয়েছে সেই ক্ষমতাবলে সাজা স্থগিত করে এই মুক্তিএসেছে।

‘করোনা থেকে মুক্তি পেতে রাষ্ট্রের কর্ণধারসহ সবাইকে আল্লাহর কাছে তাওবা করতে হবে’

রাহবার: বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির মাওলানা খুরশিদ আলম কাসেমী বলেছেন, করোনা ভাইরাসে সারা বিশ্ব থমকে আছে, এর থেকে মুক্তি পেতে নানাবিধ প্রচেষ্টা চললেও তা থেকে বের হওয়া যাচ্ছে না। সুতরাং করোনায় আতঙ্কিত না হয়ে আল্লাহর দরবারে রাষ্ট্রের কর্ণধারসহ সবার বেশি বেশি তাওবা ইসতেগফার করা এবং রাষ্ট্রকে আল্লাহর বিধান মত পরিচালনা করার অঙ্গীকার নিতে হবে।

সোমবার (১৫ জুন) বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ঢাকাস্থ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্যদের এক বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতেও সন্ত্রাস ও দুর্নীতি বন্ধ হচ্ছে না। সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আরো কঠোর হতে হবে। এদের এমন শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে যাতে অন্য কেউ এ ধরনের কাজ করার সাহস না পায়। তিনি বলেন, এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে ছুটাছুটি করেও সাধারণ রোগীরাও চিকিৎসা পাচ্ছে না। চিকিৎসার অভাবে মারা গিয়েছে এমন সংবাদও জাতির সামনে এসেছে। সরকার স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিভাগকে আরো অধিক গুরুত্ব দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। অন্যথায় চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য খাতে আরো বিপর্যয় নেমে আসবে যা দেশের জন্য খুবই অকল্যাণকর।

বৈঠকে করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ দিনমজুর ও নিম্মবিত্ত আলেমদের সহযোগিতার জন্য কেন্দ্রীয় ত্রান কমিটির কার্যক্রম অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- যুগ্মমহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, মাওলানা কোরবান আলী কাসেমী, অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা এনামুল হক মুসা, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূঁইয়া, সহপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ ফয়সাল, মহানগর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মুমিন প্রমূখ।

আল্লাহর এই আজাব ক্ষমতাসীনদের বিরাট পরীক্ষায় ফেলেছে : সংসদে হারুন

রাহবার: করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের বিএনপিদলীয় সংসদ সদস্য মো. হারুনুর রশীদ বলেছেন, ‘মানুষের ওপর জুলুম, মানুষের ওপর নিপীড়ন, মানুষের ওপর অত্যাচারের মাত্রা এত বৃদ্ধি পেয়েছে, যে কারণে আল্লাহর পক্ষ থেকে এ আজাব। আজ আমরা যারা ক্ষমতায় রয়েছি, তাদের একটা বিরাট পরীক্ষার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।’

সোমবার (১৫জুন) জাতীয় সংসদে সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন হারুনুর রশীদ।

সাংসদ হারুনুর রশীদ বলেন, ‘কোরআনের মধ্যে দেখেছি, অতীতে আল্লাহপাক হাজার হাজার বছর আগে বিভিন্ন জায়গায় যে আজাব দিয়েছেন, এই আজাবগুলো ছিল এলাকাভিত্তিক, অঞ্চলভিত্তিক, গোত্রভিত্তিক। কিন্তু এবারের এই আজাব গোটা বিশ্বকে আল্লাহ একসঙ্গে ঘিরে ফেলেছেন। এর কারণ, আমরা ক্ষমতাসীনরা ক্ষমতার লোভে, ক্ষমতার মোহে আজ সবকিছুকে ভুলে গেছি।’

বিএনপিদলীয় এ সাংসদ আরো বলেন, ‘আমি মনে করি, এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণের জন্যে আমাদের পরিপূর্ণভাবে আল্লাহর কাছে আত্মসমর্পণ করতে হবে, আল্লাহর সাহায্য চাইতে হবে। এ ছাড়া আমাদের দাম্ভিকতা, আমাদের অহংকার দিয়ে আমরা কোনো অবস্থাতেই এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পাব না, মুক্তি পাব না। সুতরাং, আমি অনুরোধ করব, আমরা আমাদের অবস্থান, আমাদের জায়গাগুলো চিন্তা করি।’

সারা পৃথিবীর চিকিৎসা ব্যবস্থা বিপর্যস্ত উল্লেখ করে হারুনুর রশীদ বলেন, ‘আমাদের মাননীয় মন্ত্রীরা বিভিন্ন বিবৃতি দেন, খুব হাস্যকর লাগে। কখনো বলেন যে, করোনার থেকে আমরা শক্তিশালী, করোনা থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা বিজয় অর্জন করব। এটা বুঝতে হবে যে, আজ এটা আল্লাহ কর্তৃক আজাব। সাত মাস ধরে সারা পৃথিবীকে যেভাবে গ্রাস করেছে, সারা পৃথিবী বিপর্যস্ত, সারা পৃথিবীর চিকিৎসা ব্যবস্থা আজ সম্পূর্ণরূপে বিপর্যস্ত। আল্লাহ পাক কোরআনে এ কারণেই বলেছেন, আমার জায়গা থেকে আমি যতক্ষণ পর্যন্ত এটার জ্ঞান, এটার ফয়সালা না দেব, ততক্ষণ পর্যন্ত তোমরা অনুসন্ধান করে, কোনো প্রচেষ্টা চালিয়ে এখান থেকে পরিত্রাণ পাবে না। এটা আল্লাহপাকের কোরআনের সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা।’

হারুনুর রশীদ অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ‘আজ এই পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সরকার অবশ্যই জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টির উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। আজ জাতির মধ্যে যে ক্ষতগুলো সৃষ্টি হয়েছে, এই ক্ষত দূর করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। এবং আল্লাহর কাছে সাহায্য চাওয়া ছাড়া, আল্লাহর কাছে আত্মসমর্পণ করা ছাড়া আমাদের দ্বিতীয় কোনো পথ নেই।’