আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইহুদিদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় নেতা ও ধর্মীয় আইনবীদ রাব্বি নাছুম রাবিনোভিচ মারা গেছেন। ৯২ বছর বয়সী এই শীর্ষ ধর্মীয় নেতা মঙ্গলবার রাতে মারা যান। রাব্বি নাছুম ছিলেন মালে আদুমিমের বীরকাত মোশে হেসডার যিশিবের ডিন। এটি ইহুদিদের ধর্মীয় আইন সম্পর্কিত একটি কর্তৃপক্ষ।

১৯২৯ সালে কানাডার মন্ট্রিলে জন্মগ্রহণকারী রবিনোভিচ বাল্টিমোর রাব্বি ইয়াকভ ইয়েজচোক রুদর্মানের ইসরাইলি যিশিবের ডিন নিযুক্ত হন। তিনি জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি এবং টরন্টো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে পিএইচডি অর্জন করেছিলেন।

রবিনোভিচ তাঁর জীবনের বেশিরভাগ সময় ইহুদি ধর্মীয় রাব্বি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে শিক্ষকতা করে অতিবাহিত করেছিলেন। ১৯৮৩ সাল থেকে তিনি ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীরাষ্ট্র ইসরাইলে বসবাস করছিলেন।

গোড়া ধর্মীয় ডানপন্থী হিসাবে পরিচিত রাবিনোভিচ ফিলিস্তিনদের উপর হামলার মূল ইন্ধনদাতা ছিলেন। অসলো শান্তি চুক্তির বিরুদ্ধে তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন তিনি এবং ফিলিস্তিনি ভূখন্ডে ইহুদি জনবসতি গড়ে তোলার পক্ষে ছিলেন।

রাবিনোভিচ তৎকালীন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী আইজ্যাক রবিনকে ‘মোসার’ হিসাবে নিন্দা করেছিলেন। যিনি ইহুদি বা ইহুদি সম্পত্তি অ-ইহুদি কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেন। আইজ্যাক রবিন আততায়ী হাতে নিহত হওয়ার পর রাব্বি নাছুমের বিরুদ্ধে হত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগে তদন্ত শুরু হয়েছিল। যদিও কখনো তাকে অভিযুক্ত করা হয়নি। ১৯৯৫ সালের ৪ নভেম্বর ইসরায়েলের কট্টর ইহুদি ধর্মাবলম্বী ও অসলো শান্তি চুক্তির বিরোধী ইগাল আমিরের কর্তৃক তিনি নিহত আইজ্যাক রবিন। তিনিই একমাত্র ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী যিনি আততায়ীর হাতে নিহত হন।

সূত্র- জেরুজালেম পোস্ট।