Category Archives: আন্তর্জাতিক

টানা তৃতীয়বার ‘বিশ্ব মুসলিম ব্যক্তিত্ব অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন এরদোগান

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান ২০২০ সালের গ্লোবাল মুসলিম পার্সোনালিটি অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছেন। এ নিয়ে টানা তৃতীয় বার নাইজেরিয়ার সংবাদপত্র মুসলিম নিউজ নাইজেরিয়ার দেয়া এই পুরস্কার অর্জন করলেন তিনি।

সংবাদপত্রটির প্রকাশক রশিদ আবু বকর এক বিবৃতিতে এরদোগানের পুরস্কার অর্জনের এই ঘোষণা দেন।

বিবৃতিতে আবু বকর বলেন, ২০২০ সালে কোভিড-১৯ মহামারীর জেরে সারাবিশ্ব প্রচণ্ড চ্যালেঞ্জের ভেতর দিয়ে গিয়েছে, যা মানুষের অগ্রগতিকে প্রভাবিত করেছে। এরদোগান এক ন্যায্য লক্ষ্যে স্থির ছিলেন এবং তার অর্জন আগের বছরকে অতিক্রান্ত করেছে।

তুর্কি রাষ্ট্র ও তার স্থানীয় অর্থনীতির জাতীয় সক্ষমতার পরিচর্যা ও উন্নয়নের মাধ্যমে, প্রেসিডেন্ট এরদোগান বিশ্বের সামনে এক উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন, যার অভাব মানবাধিকার, রাজনীতি, ন্যায়বিচার ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে সমতায় ইসলামি আদর্শের অনুপস্থিতির কারণে অনুভব করছে।

২০১৮ সাল থেকে এই পুরস্কার দেয়া শুরু হয়। বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের বিভিন্ন অর্জনকে স্বীকৃতি দেয়ার জন্যই এই পুরস্কারের প্রচলন হয়।

উল্লেখ্য, এরদোগানকে নিয়ে সারা মুসলিম বিশ্বেই এক ধরণের আলোড়ন চলছে। বর্তমান বিশ্ব মুসলিম নেতৃত্ব সংকটে অনেকের কাছে এরদোগান বৈশ্বিক মুসলিম বীর হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন নিজ গুণাবলির মাধ্যমে। সূত্র: ইয়েনি শাফাক

Tagged ,

মায়ের মৃতদেহ ১০ বছর ধরে ফ্রিজে রেখে দিয়েছিলেন জাপানি নারী

জাপানে মৃত মায়ের দেহ ১০ বছর ধরে ফ্রিজে রেখে দেওয়ার অভিযোগে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রাহবার নিউজ ডেস্ক: রাজধানী টোকিওতে অ্যাপার্টমেন্টের একটি ফ্রিজের ভেতর থেকে এক নারীর লাশ উদ্ধার করার দুই দিন পর শুক্রবার ৪৮ বছর বয়সী ইয়ুমি ইয়োশিনোকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ, জানিয়েছে কিয়োদো নিউজ।

পুলিশ জানিয়েছে, ১০ বছর আগে ওই লাশটি ফ্রিজের ভেতরে লুকিয়ে রেখেছিলেন বলে স্বীকার করেছেন ইয়োশিনো। ওই সময় বাইরে থেকে বাড়িতে ফিরে মাকে মৃত অবস্থায় পেয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এ ‍মৃত্যুর কথা জানাজানি হলে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ হতে পারেন আশঙ্কায় মায়ের লাশ লুকিয়ে ফেলেন বলে দাবি করেছেন ইয়োশিনো।

ওই সময় তার মায়ের বয়স ৬০ এর মতো ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। পৌরসভার হাউজিং কমপ্লেক্সের অ্যাপার্টমেন্টটি তার মায়ের নামে লিজ নেওয়া ছিল।

ঋণের কিস্তি শোধ করতে না পারায় চলতি মাসের মাঝামাঝি ইয়োশিনোকে টোকিওর কাতুশিকা ওয়ার্ডের ওই অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উচ্ছেদ করা হয়। তিনি বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার পর একজন ক্লিনার স্টোর রুমের একটি ফ্রিজের ভেতরে লাশটি দেখতে পান।

ময়নাতদন্তে ওই নারীর মৃত্যুর কারণ ও সময় বের করা যায়নি। তার শরীরের কিছু অংশ জমাট বাঁধা অবস্থায় পাওয়া গেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ফ্রিজের ভেতরে ঠিকমতো রাখার জন্য লাশটি বাঁকানো হয়েছিল, তবে এতে দৃশ্যমান কোনো আঘাতের চিহ্ন ছিল না।

বুধবার লাশটি পাওয়ার পর ইয়োশিনোর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে শুক্রবার স্থানীয় সময় সকালে তদন্তকারীরা টোকিরও নিকটবর্তী চিবা শহরের একটি হোটেল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন।

৮০টি দেশে পবিত্র কুরআন শরিফ উপহার দিল তুরস্ক

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বের অধিকাংশ দেশ অমুসলিম প্রধান। এসব দেশে উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় মুসলমান রয়েছে। যারা বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারণে দ্বীনি শিক্ষা অর্জনে অক্ষম । তাদের মাঝে দ্বীনি শিক্ষা ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে প্রায় ৮০ টি দেশে পবিত্র কুরআন ও দ্বীনি বই উপহার দিয়েছে তুরস্ক।

‘তোমার হাতে আমার উপহার পবিত্র কুরআন’- এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ২০১৫ সালে এই প্রকল্প শুরু করেছে তুরস্কের ধর্ম মন্ত্রণালয়। এই প্রচেষ্টার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী কুরআনের আলো ছড়িয়ে পড়বে বলে তারা আশাবাদী।

তুরস্কের এই প্রকল্প এখনো চলমান। ২০২০ সালের শেষ পর্যন্ত অন্তত ৮০টি দেশের প্রায় এক কোটি মুসলমানের হাতে পবিত্র কুরআন তুলে দিয়েছে তুরস্ক। এ পর্যন্ত তাদের বিতরণ করা কুরআনের সংখ্যা ৯০ লাখ ৭৭ হাজার ১০১টি। আফ্রিকা ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশে এসব বিতরণ করা হয়।

সম্প্রতি আর্জেন্টাইন মুসলমানদেরকে ধর্মীয় শিক্ষা দেওয়ার জন্য সাত হাজার কুরআন শরিফ উপহার দিয়েছে তুরস্ক। শুক্রবার বুয়েনস আইরেস এল আহমেদ মসজিদে জুমার নামাজের পরে আর্জেন্টিনার ইসলামিক সেন্টারের সহযোগিতায় তুরস্কের ধর্ম মন্ত্রণালয় এসব বিতরণ করে।

এ সময় তুরস্কের রাষ্ট্রদূত শফিক ওরাল ইসলাম ধর্মকে জানার ও বোঝার প্রতি গুরুত্বারোপ করে বলেন, পবিত্র কুরআন পড়ে তার আলো দিয়ে আমরা যদি আমাদের জীবনকে আলোকিত করতে পারি; তাহলে সফল হব এবং সুখ ও শান্তির সমাজ গঠনে কাজ করতে পারব।

তুরস্কের ধর্মীয় ও বৈদেশিক সম্পর্ক বিভাগের প্রধান এরদাল আতালাই কুরআন বিতরণের ওই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মুসলমানদের সাথে আমরা যোগাযোগ রক্ষা করার চেষ্টা করছি। দ্বীনি শিক্ষা বঞ্চিত মুসলমানদের আমরা শিক্ষার ব্যবস্থা করব।

এছাড়াও আর্জেন্টাইন কোনো মুসলমান ইসলাম ধর্মকে ভালোভাবে জানার জন্য যদি তুরস্কের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতে চায়, তার জন্য সে সুযোগ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে আমরা সবধরনের সহযোগিতা করব বলেও জানান এরদাল আতালাই।

৫০ লাখ ওমরাকারীর কেউ করোনায় আক্রান্ত হননি!

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ছয় মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর অক্টোবর থেকে পুনরায় ওমরার জন্য খুলে দেয়া হয় মসজিদুল হারাম। চালুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ৫০ লক্ষ মানুষ ওমরা এবং মসজিদ আল-হারামে নামাজ আদায় করেছেন। এই ৫০ লক্ষ মানুষের মধ্যে এখনো কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হননি।

বুধবার জেদ্দায় মক্কার গভর্নর প্রিন্স খালেদ আল-ফয়সলের সাথে বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে এ কথা জানান সৌদী আরবের হজ এবং উমরা বিষয়ক মন্ত্রী ড. মুহাম্মাদ সালেহ।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, অক্টোবর থেকে পুনরায় চালুর পর থেকে নিয়ে এ পর্যন্ত ৫০ লক্ষ মানুষ উমরা এবং মসজিদ আল-হারামে নামাজে অংশ নিয়েছেন। তবে আল্লাহ তায়ালার রহমতে এখন পর্যন্ত কেউ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি।

উল্লেখ্য যে, করোনা পরিস্থিতির কারণে গত মার্চ মাসে ওমরা ও মসজিদুল হারামে নামাজ স্থগিত করেন সৌদি কর্তৃপক্ষ। এরপর ২২ সেপ্টেম্বর থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চার ধাপে ওমরা পালনের জন্য খুলে দেওয়া হয় মসজিদুল হারাম।

করোনায় আক্রান্ত ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ: রাহবার

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ফ্রান্সের বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ফরাসী প্রেসিডেন্টের সরকারি অফিস থেকে এ তথ্য নিশ্চিত জানানো হয়েছে গনমধ্যমে।

বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) তার করোনা আক্রান্তের খবর প্রকাশ করা হয়। এখন তিনি আইসোলেশনে আছেন।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার রাষ্ট্রীয় বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রাথমিকভাবে ম্যাক্রোঁর করোনায় আক্রান্তের প্রমাণ মিলেছে। এখন তিনি সাতদিনের আইসোলেশনে আছেন। আপাতত দূর থেকেই তিনি তার জরুরি কাজগুলো সম্পাদনা করবেন।

ধর্ষকদের পুরুষাঙ্গ অকেজো করে দেয়ার আইন করলো পাকিস্তান

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ধর্ষকদের রাসায়নিকের মাধ্যমে অক্ষম করে দেয়ার বিধি রেখে, ধর্ষণ প্রতিরোধে নতুন আইন পাশ করলো পাকিস্তান। এ সংক্রান্ত অধ্যাদেশে প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির অনুমোদনের পর মঙ্গলবারই দ্রুত কার্যকর হয় আইনটি।

যৌন নির্যাতন মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি, নারী পুলিশ বৃদ্ধি, ভুক্তভোগী, প্রত্যক্ষদর্শী ও সাক্ষীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত, ধর্ষকদের তালিকা তৈরির বিধানও রয়েছে নতুন আইনে।

নারী নির্যাতনের বহু কদর্য উদাহরণ আছে পাকিস্তানে। তবে সম্প্রতি লাহোরের রাস্তায় দুই শিশু সন্তানের সামনে এক নারীকে গণধর্ষণের পর প্রবল বিক্ষোভের পরই এ পদক্ষেপ নেয় পাকিস্তান সরকার। যার মাধ্যমে সারা পাকিস্তান এ ইমরান খান ব্যাপক প্রশংসিত হয়।

গেলো মাসে মন্ত্রিসভার বৈঠকে আইনটিতে অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। রাসায়নিক প্রয়োগে ধর্ষককে অক্ষম করে দেয়ার বিধান রয়েছে ইন্দোনেশিয়া ও পোল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশে।

আসামে বিজেপি সরকার ৬১০টি মাদরাসা বন্ধ করে দিচ্ছে

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের আসাম রাজ্যে সরকার পরিচালিত সব মাদরাসা ও টোল (সংস্কৃত স্কুল) বন্ধ করার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে রাজ্য সরকার।

আসামের বিজেপি সরকারের মুখপাত্র ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটোওয়ারি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, বিষয়টি এরইমধ্যে রাজ্য মন্ত্রিসভায় পাস হয়েছে বলে জানা গেছে।

রাজ্যের বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন বসছে ২৮ ডিসেম্বর থেকে। এই অধিবেশনে এ বিষয়ে একটি বিল পেশ করা হবে। মাদরাসা ও সংস্কৃত স্কুল সম্পর্কিত বর্তমান আইন বাতিল করার বিষয় থাকবে এই বিলে। আসামের রাজধানী গৌহাটিতে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

বিজেপি মন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটোওয়ারি আরও জানান, মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোওয়ালের সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে সরকার পরিচালিত সব মাদ্রাসা ও সংস্কৃত স্কুল বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের পর আসামজুড়ে তীব্র সমালোচনার ঝড় শুরু হয়েছে। বিশেষ করে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো এরইমধ্যে এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছে।

প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন এনএসআইয়ের আসাম প্রদেশের সাবেক সভাপতি প্রদীপ রায় মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) বলেন, এ বিষয়টি তারা সাধারণভাবে নিচ্ছেন না। মাদরাসা বন্ধ করার পেছনে গভীর রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে তারা ধারণা করছেন । সেই সঙ্গে রয়েছে ধর্মীয় সুরসুরিও। মাদরাসা বন্ধ করা হলে তা হবে ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তিতে আঘাত। মাদরাসায় শুধু আরবি শিক্ষা দেওয়া হয় না। বিজ্ঞান ইংরেজি গণিত ইত্যাদি বিষয় পড়ানো হয়। তাই মাদ্রাসা বন্ধ করার কোন যুক্তি নেই।

ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তারা তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবেন এবং সরকারকে এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে বাধ্য করবেন বলেও জানান তিনি।

বিজেপি সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক দলগুলির পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও ইতিমধ্যে ব্যাপক সমালোচনা এবং প্রতিবাদের ঝড় শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, আসামের বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা গত অক্টোবরে জানিয়েছিলেন, রাজ্যে মোট ৬১০টি সরকার পরিচালিত মাদরাসা রয়েছে এবং সরকার এসব প্রতিষ্ঠানের জন্য বছরে ২০০ কোটি রুপি ব্যয় করে। এসব মাদ্রাসা উচ্চ বিদ্যালয়ে রূপান্তরিত করা হবে এবং শিক্ষার্থীদেরকে নিয়মিত শিক্ষার্থী হিসেবে নতুন করে ভর্তি করানো হবে। এছাড়া সংস্কৃত স্কুলগুলোকে ভারতীয় সংস্কৃতি, সভ্যতা ও জাতীয়তাবাদ শিক্ষা ও গবেষণার কেন্দ্রে রূপান্তরিত করা হবে।

বিজেপির বিজয় মিছিল থেকে মসজিদ ভাংচুরঃ রাহবার নিউজ।

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতের বিহারে বিজয় মিছিল করতে গিয়ে একটি মসজিদে ভাংচুর চালানোর অভিযোগ উঠেছে বিজেপি সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় চারজন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার পূর্ব চম্পারণ জেলার জামুয়া গ্রামে ঘটেছে এই ঘটনা।

পুলিশ বরাত দিয়ে জানা গেছে, এক বিজেপি বিধায়কের নির্বাচনে জয় উদযাপনে যখন বিজয় মিছিল বের হয়, তখন সন্ধ্যার নামাজ চলছিল। সে সময় স্লোগান না দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল বিজেপি সমর্থকদের। এর থেকেই বিশৃঙ্খলার সূত্রপাত।

স্ট্যাশন হাউস অফিসার (এসএইচও) অভয় কুমার জানিয়েছেন, ঢাকা আসনে আরজেডি’র ফয়জল রহমানকে পরাজিত করে ভোটে জেতেন বিজেপির পবন কুমার বনসল। জয় ঘোষণার পরপরই শুরু হয় বিজয় মিছিল। তবে বনসল নিজে সেই মিছিলে ছিলেন না।

কুমার বলেছেন, ‘নামাজের সময় উচ্চস্বর এ স্লোগান না তুলতে বলা হলে তীব্র বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। শুরু হয় হাতাহাতি। বিজয় মিছিলে থাকা বিজেপি সমর্থকরা পাথর ছুড়তে থাকেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

গ্রামবাসীর অভিযোগ, ‘প্রায় ৫০০ লোকের বিজয় মিছিল থেকে স্লোগান ওঠে জয় শ্রী রাম। তারা মসজিদের গেট, জানালা ভেঙ্গে দেন। ভেতরের জিনিসপত্র ভেঙ্গে দেন।’

এই ঘটনায় ৩১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এসএইচও। গোটা এলাকায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে। আর কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, সে জন্য মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

মাদ্রাসা বন্ধ হলেই শেষ হবে অন্য ধর্মের প্রতি ঘৃণা: ওয়াসিম রিজভী

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ নভেম্বর মাস থেকে ভারতের আসাম সরকার রাজ্যে সরকারি মাদ্রাসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আসামের শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, সরকারি টাকায় কোরআন পড়ানো যাবে না। দেশের বেশিরভাগ রাজ্যে সংখ্যালঘু উন্নয়নের নামে প্রতি বছর বেশি বেশি পরিমান অর্থ মাদ্রাসায় ঢেলে দিচ্ছে। এই সময় আসাম সরকারের উচিত একটু ভিন্ন ধরণের সিদ্ধান্ত নেওয়ার। আসাম সরকারের এমন সিদ্ধান্তে এখন পূরো ভারতজুড়ে নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভী আসাম সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। ওয়াসিম রিজভী বলেছেন, মাদ্রাসা পুরোপুরি বন্ধ হওয়া দরকার এবং সেগুলোকে স্কুলে কনভার্ট করে দেওয়া উচিত।

উল্লেখ্য যে মুসলিম নামধারি এসব শিয়া নেতারা সারা দেশে মুসলিম নির্যাতনে চুপ থাকলেও যে কোন মুসলিম ইস্যুতে বরাবর ই বিপক্ষ অবস্থান নিয়ে নিজেদের হিন্দুত্যবাদী ও ইহুদিদের এজেন্ডা হিসেবে প্রমাণ করছে।

Tagged ,

মাওলানা ড. আদিল খান যে কারনে শহিদ হয়েছেন।

রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ বর্তমান মুসলিম বিশ্বের অন্যতম সেরা ইসলামিক স্কলার, পাকিস্তানের গর্ব, বাতিল ফেরকার বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর জামিয়া ফারুকিয়া করাচির মুহতামিম হযরত মাওলানা সলিমুল্লাহ খান রহ. এর যোগ্য উত্তরসূরী মাওলানা ডক্টর আদিল খান সাহেব ১০ অক্টোবর রোজ শনিবার জামিয়া দারুল উলুম করাচিতে মাগরিবের নামায আদায় করেন। নামাযের পর হযরত মুফতি মুহাম্মদ রফি উসমানি এবং হযরত মুফতি মুহাম্মদ তাকি উসমানি হাফি. সহ দারুল উলুম করাচির অন্যান্য উলামায়ে কেরামের সাথে দ্বীনী বিষয়ে পরামর্শ করেন। সেখান থেকে বের হয়ে নিজ প্রতিষ্টান জামিয়া ফারুকিয়া যাওয়ার পথে সন্ত্রাসীদের গুলিতে তিনি, তার পুত্র ও তার গাড়ির ড্রাইভার শাহাদাৎ বরণ করেন।

বর্তমান সমকালীন সময়ে মাওলানা ডক্টর আদিল খান রহ. প্রায় একাই বাতিল ফিরকাগুলোর জন্য সবচেয়ে বড় আতংক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন।

কয়েকদিন আগে যখন শিয়া গোষ্ঠী সাহাবায়ে কেরামের শানে জঘন্য মন্তব্য করে তখন মাওলানা ডক্টর আদিল খান রহ. ও শাইখুল ইসলাম মুফতি মুহাম্মদ তাকি উসমানি হাফি. এর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে পাকিস্তানের আপামর জনতা শিয়াদের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেন। শিয়া গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তারা উভয়ে অন্যান্য সকল ফিরকাগুলোকে এক সুতোয় নিয়ে এসেছিলেন। সবচেয়ে প্রভাবশালী জেনারেল বাজওয়াকে তিনি শিয়া ও অন্যান্য বাতিল ফিরকা সম্পর্কে হুংকার ছেড়ে সতর্ক করেছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে এটাই তার শাহাদাৎ এর কারন।

কর্মপন্থায় তিনি হুবহু তার পিতা হযরত মাওলানা সলিমুল্লাহ খান রহ এ-র মতো করে সামনে এগিয়ে যাচ্ছিলেন। সবাই তাকে পিতার যোগ্য উত্তরসূরী বলে স্বীকৃতি দিয়েছিলেন। তার পিতা ও ঠিক একইভাবে বাতিলের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার কারনে সন্ত্রাসী দের গুলিতে শাহাদাৎ বরণ করেন। ষড়যন্ত্রকারীদের হাতে তাকেও বাবার মত শাহাদাৎ বরণ করতে হয়েছে।

আল্লাহ তাআলা তাঁর শাহাদাতকে কবুল করুন৷

Tagged , , ,