রাহবার আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বের অধিকাংশ দেশ অমুসলিম প্রধান। এসব দেশে উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় মুসলমান রয়েছে। যারা বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারণে দ্বীনি শিক্ষা অর্জনে অক্ষম । তাদের মাঝে দ্বীনি শিক্ষা ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে প্রায় ৮০ টি দেশে পবিত্র কুরআন ও দ্বীনি বই উপহার দিয়েছে তুরস্ক।

‘তোমার হাতে আমার উপহার পবিত্র কুরআন’- এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ২০১৫ সালে এই প্রকল্প শুরু করেছে তুরস্কের ধর্ম মন্ত্রণালয়। এই প্রচেষ্টার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী কুরআনের আলো ছড়িয়ে পড়বে বলে তারা আশাবাদী।

তুরস্কের এই প্রকল্প এখনো চলমান। ২০২০ সালের শেষ পর্যন্ত অন্তত ৮০টি দেশের প্রায় এক কোটি মুসলমানের হাতে পবিত্র কুরআন তুলে দিয়েছে তুরস্ক। এ পর্যন্ত তাদের বিতরণ করা কুরআনের সংখ্যা ৯০ লাখ ৭৭ হাজার ১০১টি। আফ্রিকা ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশে এসব বিতরণ করা হয়।

সম্প্রতি আর্জেন্টাইন মুসলমানদেরকে ধর্মীয় শিক্ষা দেওয়ার জন্য সাত হাজার কুরআন শরিফ উপহার দিয়েছে তুরস্ক। শুক্রবার বুয়েনস আইরেস এল আহমেদ মসজিদে জুমার নামাজের পরে আর্জেন্টিনার ইসলামিক সেন্টারের সহযোগিতায় তুরস্কের ধর্ম মন্ত্রণালয় এসব বিতরণ করে।

এ সময় তুরস্কের রাষ্ট্রদূত শফিক ওরাল ইসলাম ধর্মকে জানার ও বোঝার প্রতি গুরুত্বারোপ করে বলেন, পবিত্র কুরআন পড়ে তার আলো দিয়ে আমরা যদি আমাদের জীবনকে আলোকিত করতে পারি; তাহলে সফল হব এবং সুখ ও শান্তির সমাজ গঠনে কাজ করতে পারব।

তুরস্কের ধর্মীয় ও বৈদেশিক সম্পর্ক বিভাগের প্রধান এরদাল আতালাই কুরআন বিতরণের ওই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মুসলমানদের সাথে আমরা যোগাযোগ রক্ষা করার চেষ্টা করছি। দ্বীনি শিক্ষা বঞ্চিত মুসলমানদের আমরা শিক্ষার ব্যবস্থা করব।

এছাড়াও আর্জেন্টাইন কোনো মুসলমান ইসলাম ধর্মকে ভালোভাবে জানার জন্য যদি তুরস্কের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতে চায়, তার জন্য সে সুযোগ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে আমরা সবধরনের সহযোগিতা করব বলেও জানান এরদাল আতালাই।