Category Archives: হোম ১

গরীব মানুষকে বেশি ত্রাণ দেয়ায় আলু ও চালের দাম বেড়েছে: কৃষিমন্ত্রী

রাহবার ডেস্ক: করোনা দুর্যোগে গরীব মানুষকে বেশি করে ত্রাণ দেয়ার কারণে আলু ও চালের দাম বেড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে সচিবালয়ে চট্টগ্রামের আনোয়ারার হাউড্রোলিক এলিভেটর ড্যামের ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, এখন গরীব মানুষ নেই বললেই চলে, ত্রাণের চাল নিয়ে গবাদিপশুকে খাওয়াচ্ছে মানুষ। চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় বরুমচড়াতে ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি অত্যাধুনিক হাউড্রোলিক এলিভেটর ড্যাম পাইলট প্রকল্প হিসাবে নির্মাণ করা হয়েছে। চীনের তৈরি এই ড্যাম তিন হাজার হেক্টর জমির ফসল রক্ষা করবে।

সচিবালয় থেকে সেই প্রকল্পের ভার্চুয়াল উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী। উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সাংসদ ও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী জানান, কেনো বাড়লো আলু, চালসহ সবজির দাম। করোনাকালে ত্রাণ নিয়ে মানুষ গবাদিপশুর খাদ্য হিসাবে ব্যবহার করেছে বলেও দাবি করেন মন্ত্রী।

অবশ্য মন্ত্রী স্বীকার করেন বাজারদর বৃদ্ধিতে মধ্যস্বত্বভোগীরা কারসাজি করে। এদের দৌরাত্ম্য কমানো উচিত।

আবারো বাড়ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি

রাহবার ডেস্ক: শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আরো বাড়বে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি তো বাড়াতে হবে, তারিখটা আপনাদের জানিয়ে দেব।’

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেছেন, ছুটি কতদিন বাড়বে, সে সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবারের মধ্যে সংবাদমাধ্যমকে জানাবেন তারা।

আগামী সপ্তাহে উচ্চ মাধ্যমিক তথা এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ করা হবে। পরীক্ষার প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে শিক্ষার্থীদের চার সপ্তাহ সময় দেয়া হবে। তবে কোনো শিক্ষার্থী বিশেষ কারণে পরীক্ষা দিতে না পারলে তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পরীক্ষা না নিয়ে আগের পরীক্ষার মাধ্যমে মূল্যায়ন করে সার্টিফিকেট প্রদান করার প্রস্তাব করছেন অনেকে। এটিকেও আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি, এটি একটি প্রস্তাব হতে পারে। তবে পরীক্ষা ছাড়া সার্টিফিকেট দিলে তারা যখন চাকরি নিতে যাবে তখন তাদের বলা হবে, ‘ও তোমরা ২০২০ সালের পরীক্ষা ছাড়া পাস করা ব্যাচ।’ এমন পরিস্থিতি তৈরি না করতে আমরা পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘কবে থেকে এইচএসসি-সমমান পরীক্ষা শুরু হবে তা আগামী সপ্তাহের সোম অথবা মঙ্গলবার সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরা হবে। পরীক্ষা আয়োজনে প্রশ্ন, উত্তরপত্র তৈরিসহ সব প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। এখন শুধু পরীক্ষা শেষ করা বাকি রয়েছে। পরীক্ষা দিতে গিয়ে যাতে কারও ক্ষতি না হয় সে বিষয়টি আমরা গুরুত্ব দেব। বিশেষ কারণে কোনো শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে না পারলে আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে তার পরীক্ষা নেব।’

তবে এবার সব বিষয়ের পরীক্ষা না নিয়ে মৌলিক বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দেয়া হবে। কোন কোন বিষয়ের পরীক্ষা নেয়া হবে সেটি আগামী সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে। এ ক্ষেত্রে কেউ যদি বিশেষ কারণে পরীক্ষা দিতে না পারে তবে তার জন্য বিকল্প ব্যবস্থা রাখা হবে। সব কিছু আগামী সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করা আছে।

ভারতের ২০ কোটি মুসলমানের জীবন হুমকির মুখে: জাতিসংঘ ভাষণে ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাতিসংঘের ৭৫তম সাধারণ অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান অভিযোগ করে বলেছেন, হিন্দুত্ববাদী ভারতে ইসলামবিদ্বেষ বিরাজ করছে এবং এতে করে প্রায় ২০ কোটি মুসলমানের জীবন হুমকির মুখে পড়েছে।

ভাষণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আরো বলেন, ভারতের হিন্দুত্ববাদী সরকার ইসলামবিদ্বেষকে পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে। এ সময় তিনি ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ অধিকার বাতিলে নয়া দিল্লির সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এখবর জানিয়েছে। পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতের আরএসএস মনে করে, ভারত শুধু হিন্দুদের এবং অন্য ধর্মের মানুষেরা তাদের সমমর্যাদার নাগরিক নন।

গত বছর আগস্টে জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ অধিকার বাতিলে নরেন্দ্র মোদির সরকারের নেওয়া সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন ইমরান খান। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে জম্মু-কাশ্মির বিরোধের মীমাংসা না হলে দক্ষিণ এশিয়ায় কোনও দীর্ঘস্থায়ী শান্তি ও স্থিতিশীলতা আসবে না।

ইসরাইল-আমিরাত চুক্তি: নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেলেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০২১ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। তার মধ্যস্থতায় ইসরায়েল এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে শান্তিচুক্তি হওয়ার কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এ মনোনয়ন পেলেন তিনি।

নরওয়ের রাজনীতিবিদ ক্রিস্টিয়ান টাইব্রিং-জেড্ডে এ বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য ট্রাম্পের নাম উত্থাপন করেন। সম্প্রতি ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনে চুক্তি করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। চুক্তির মধ্যস্থতা করেছেন ট্রাম্প। এ কারণে এবার তাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে স্কাই নিউজ।

ক্রিস্টিয়ান বলেন, ‘তার যোগ্যতা সম্পর্কে বলতে গেলে, আমি মনে করি দেশে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তিনি যে চেষ্টা করেছেন, তা শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়নপ্রাপ্ত বেশিরভাগ মানুষের চেয়ে বেশি। ’

তিনি বলেন, ইসরায়েল এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠায় ট্রাম্প প্রশাসন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। এমনকি মধ্যপ্রাচ্যে মোতায়েন করা মার্কিন সেনা সদস্যের সংখ্যাও অনেকাংশ কমিয়েছেন ট্রাম্প।

মনোনয়নের চিঠিতে ক্রিস্টিয়ান লিখেছেন, আশা করা হচ্ছে, মধ্যপ্রাচ্যের অন্য দেশগুলোও সংযুক্ত আরব আমিরাতের পদক্ষেপ অনুসরণ করবে, এ চুক্তি ‘গেম চেঞ্জার’ হয়ে উঠতে পারে, যা মধ্যপ্রাচ্যকে সহযোগিতা ও সমৃদ্ধির অঞ্চলে রূপান্তর করবে।

পাকিস্তানের বেসামরিক তৃতীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা পেলেন আল্লামা তাকী উসমানী

রাহবার ডেস্ক: পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে ‘সিতারায়ে ইমতিয়াজ’ পদকে ভূষিত হয়েছেন বিশ্ববিখ্যাত আলেম শায়খুল ইসলাম মুফতী মুহাম্মাদ তাকী উসমানী।

সোমবার (০৭ সেপ্টেম্বর) পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির হাত থেকে তিনি সিতারায়ে ইমতিয়াজ গ্রহণ করেন। সিতারায়ে ইমতিয়াজ অর্থ শ্রেষ্ঠত্বের তারকা। এটি পাকিস্তানের বেসামরিক তৃতীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা।

পাকিস্তানের জাতীয় স্বার্থ সুরক্ষা, শান্তি ও সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠায় বিশ্বব্যাপী অবদানের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে মুফতী তাকী উসমানীকে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

আল্লামা মুফতী মুহাম্মাদ তাকী উসমানী বিশ্বখ্যাত একজন প্রখ্যাত ইসলামী ব্যক্তিত্ব। তিনি হাদীস, ইসলামী ফিকহ,তাসাউফ ও অর্থনীতিতে বিশেষজ্ঞ। সম্প্রতি তিনি বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী মুসলিম ব্যক্তি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

১৯৮০ সাল থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত তিনি পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় শরীয়াহ আদালতের এবং ১৯৮২ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের শরীয়াহ আপিল বেঞ্চের বিচারক ছিলেন।

চুমু খেয়ে কুরআন অবমাননার প্রতিবাদ জানালেন সুইডিশ নারী

রাহবার: চুমু খেয়ে কুরআন অবমাননার প্রতিবাদ জানিয়েছেন এক সুইডিশ নারী। আর এ চুমু খাওয়ার দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সুইডেনে পবিত্র কুরআন পোড়ানো এবং ফ্রান্সের শার্লি এবদো পত্রিকায় কুরআন অবমাননার প্রতিবাদে অভিনব এ প্রতিবাদ জানান তিনি।

ফেসবুক ও অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায় সুইডেনের মালমো শহরে সংঘটিত কোরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে ওই নারী কোরআন চুমু খান। আর বলেন, ‘সুইডিশ নারী মালমো শহরের মুসলিমদের সঙ্গে একত্বতা ঘোষণা করেছে।’

সুইডিশ ওই নারী ভিডিওটিতে বলছেন, ‘আমি জানি না বইটি কি সম্পর্কে। কিন্তু মানবতা ও অনুকম্পার জন্য আমি তোমাদের সঙ্গে একাত্বতা ঘোষণা করছি। বইটি যেহেতু তোমাদের কাছে গুরুত্ব, তাই আমার কাছেও তা গুরুত্বপূর্ণ। বইটি চুমু দিয়ে আমি গর্বিত।’

সুইডিশ নারী আরো বলেন, ‘ডেনিশ ব্যক্তি সুইডেনে যা করেছে তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই।’

গত ২৮ আগস্ট (শুক্রবার) সুইডেনের মালমো শহরে কট্টরপন্থী ডেনিশ দল হার্ড লাইনের তিন সদস্য মুসলমানদের ধর্মীয়গ্রন্থ পবিত্র কুরআনে আগুন লাগিয়ে অবমাননা করে।

সূত্র, আল মুজতামা

কুরআনে আগুন দেয়া খৃষ্টধর্মশিক্ষার বিপরীত কাজ: খ্রিস্টান ধর্মযাজক

বেলায়েত হুসাইন: সুইডেনে মুসলিম উম্মাহর প্রধান ধর্মীয় গ্রন্থ পবিত্র কুরআনে আগুন দেয়ার ঘটনাকে ‘আত্মিক কষ্ট’ আখ্যায়িত করেছেন মিশরের এক খ্রিস্টান ধর্মযাজক। তিনি বলেন, কোরআনে আগুন দেয়া খৃষ্টধর্মশিক্ষার বিপরীত কাজ।

গত বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) মিশরের আলেকজান্দ্রিয়ার আঞ্চলিক আর্চবিশপ ডক্টর মুনির হান্না নামের এ যাজক এপিসকোপাল চার্চের পক্ষ থেকে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।

ঘটনাটিকে বেদনাদায়ক উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের সম্মান করা এবং তাদের কষ্ট না দেয়া- এটি যিশুর শিক্ষা, তা ছাড়া কুরআনের অবমাননা খ্রিস্টীয় মূল্যবোধেরও পরিপন্থী।

তার দাবি, কোরআনে আগুন দেয়ার ঘটনা সব ধর্মাবলম্বীদের অনুভূতিকেই আঘাত করেছে; বিশেষত যারা ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। এরূপ অবিবেচনাপ্রসূত কাজ কোন সময়ে এবং কোন পরিস্থিতিতেই ব্যক্তিগত স্বাধীনতা হতে পারেনা।

ডক্টর মুনির হান্না সুইডেনের এই অপ্রীতিকর ঘটনায় অত্যন্ত মর্মাহত হয়েছেন বলেও জানান।

সূত্র, আল বাওওয়াবাহ নিউজ

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরণ: বাড়লো মৃতের সংখ্যা

রাহবার ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটে চিকিৎসাধীন দগ্ধ ৩৭ জনের মধ্যে শিশু ও মসজিদের মুয়াজ্জিনসহ এ পর্যন্ত ১৩ জন মারা গেছেন।

শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালে হাসপাতালের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন গণমাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এসময় তিনি আরও জানান, বাকিরাও রয়েছেন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।

তিনি বলেন, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দগ্ধদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি গভীর শোকও প্রকাশ করেছেন।

ডাক্তাররা জানিয়েছেন, সবারই অবস্থা সংকটাপন্ন, কমবেশি সবারই পুড়েছে শ্বাসনালী।

এদিকে, হাসপাতালে দগদ্ধদের দেখতে এসে স্থানীয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সব কিছুই তদন্ত করে দেখা হবে। এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটিকে ১০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

ইহুদিবাদী ইসরাইলকে কোনো ধরনের ছাড় দেয়া হবে না: হামাস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস সেখানকার সমস্ত রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের মধ্যে জোরালো ঐক্য প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছে। গতকাল (বৃহস্পতিবার) ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ঐক্য প্রতিষ্ঠা বিষয়ক এক অনলাইন বৈঠকে এ আহ্বান জানান হামাসের রাজনৈতিক শাখার প্রধান ইসমাইল হানিয়া।

তিনি বলেন আমেরিকা, “ইহুদিবাদী ইসরাইল এবং বিশ্বাসঘাতক আরব সরকারগুলো ফিলিস্তিনিদের লক্ষ্য করে যে পদক্ষেপ নিয়েছে তা মোকাবেলার জন্য ফিলিস্তিনের সমস্ত রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের মধ্যকার মতভেদ ভুলে যেতে হবে।”

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে অবস্থিত ফিলিস্তিনি দূতাবাস থেকে ইসমাইল হানিয়া অনলাইন বৈঠকে যোগ দেন। তিনি বলেন, “আমরা আজ ঐক্যবদ্ধ হয়েছি এই কথা বলতে যে, ফিলিস্তিনি জাতি দেশে থাকুক আর বিদেশে থাকুক তারা ঐক্যবদ্ধ থাকবে।”

অনলাইনে বৈঠকে যোগ দেন গাজাভিত্তিক আরেকটি প্রতিরোধকাম সংগঠন ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের নেতা জিয়াদ আল-নাখালা এবং ফাতাহ আন্দোলনের কয়েকজন নেতা।

ইসমাইল হানিয়া বলেন, ফিলিস্তিনকে কেন্দ্র করে আমেরিকা, ইসরাইল এবং আরব নেতারা যে সমস্ত পদক্ষেপ নিচ্ছে তার একমাত্র লক্ষ্য হচ্ছে ইতিহাস বদলে দেয়া এবং ফিলিস্তিনের ভৌগলিক অবস্থানকে মুছে দেয়া। এ অবস্থায় ফিলিস্তিনিদের পক্ষ থেকে ঐক্যবদ্ধভাবে অংশগ্রহণমূলক প্রতিরোধ গড়ে তোলা দরকার। তিনি সুস্পষ্টভাবে ঘোষণা দেন- ইহুদিবাদী ইসরাইল ফিলিস্তিনিদের শত্রুই থাকবে, তাদেরকে কোনো ধরনের ছাড় দেয়া হবে না।


উৎস, পার্সটুডে

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে এসি বিস্ফোরণ, আহত অন্তত ২৫

রাহবার: নারায়ণগঞ্জে একটি মসজিদে এসি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন বলে প্রাথমিভাবে ধারণা করা হচ্ছে। আহতদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসা হয়েছে।

শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ৯টার দিকে সদর উপজেলার ফতুল্লার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রাত পৌনে ৯টার দিকে মসজিদের ভেতরে এসি বিস্ফোরিত হয়। মুহূর্তের মধ্যে মসজিদের ভেতরে থাকা ৩০ থেকে ৪০ জনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। হুড়োহুড়ি করে বের হওয়ার চেষ্টা করেন অনেকে। তাদের কেউ কেউ দগ্ধ ও আহত ছিলেন।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন জানান, ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের টিম কাজ করছে।