রাহবার: ঐতিহাসিক শহীদ বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী আসামীদেরকে ভারতের বিশেষ আদালত বেকসুর খালাস ঘোষণা দেয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত আল্লামা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী। তিনি বলেন, ইতোপূর্বে হিন্দুত্ববাদের পক্ষে ভারতের সুপ্রিমকোর্টের দেয়া রায় “মসজিদের জায়গায় মন্দির নির্মাণ হবে” এখন আবার বাবরি মসজিদ কেউ ভাঙেনি এবং সকল আসামীকে বেকসুর খালাস” দিয়ে দিয়েছে। এতে এটা দেয়াই প্রমান হয় যে, ভারত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাবাজ ও উগ্র সন্ত্রাসীদের মদদ দিচ্ছে। এ ধরনের এক পেশে রায় মুসলিম বিশ্ব কখনো মেনে নিবে না।

আজ বৃহস্পতিবার (০১ অক্টোবর) বিকালে কামরাঙ্গীরচরে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের এক জরুরী বৈঠকে সভাপতির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, মাওলানা সানাউল্লাহ, মুফতি আফম আকরাম হুসাইন ও মাষ্টার আনসার উদ্দিন প্রমুখ।

আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী আরো বলেন, ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের স্থানে মসজিদই হবে, মন্দির নয়। মসজিদ ভেঙ্গে তদস্থলে মন্দির বানানোর ধৃষ্টতা মুসলিম উম্মাহ বরদাশত করবে না। তিনি বাবরি মসজিদ রক্ষায় মুসলিম বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা রাখার আহবান জানান।